1. live@bisshosangbad.com : বিশ্ব সংবাদ : বিশ্ব সংবাদ
  2. info@www.bisshosangbad.com : বিশ্ব সংবাদ :
সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ১১:২০ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
এমপি নিখিলের গাড়িতে হামলা। সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী… বিরক্ত হয়ে কোটা বাদ দিয়েছিলাম, কি হয় দেখার জন্য। বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক ও মানবাধিকার সোসাইটি’এর উদ্দোগে মিরপুরে মানববন্ধন। দেশে কোনো বিচার নেই———আদালতে বিএনপি নেতা মাহবুব চৌধুরী। কোটাব্যাবস্হা পূর্ণবহাল মেধাবী শিক্ষার্থীদের সাথে প্রহসন ——— বিএনপি নেতা মাহবুব চৌধুরী। কোটাবিরোধী আন্দোলনের কোনো যোক্তিকতা নেই : প্রধানমন্ত্রী। মেডিকেল কলেজ দখলের চেষ্টায় স্বাচিপ সভাপতি! দুদকের তদন্ত, পুলিশের সাবেক কর্মকর্তার অবৈধ সম্পদের পাহাড়। ইসলামি ৬টি ব্যাংকের অবস্থা এখন আরও খারাপ। বাজার পরিস্থিতি, ঝাঁজ ছড়াচ্ছে পেঁয়াজ, অপরিবর্তিত মরিচের দাম।

বিশ্বকাপ থেকে বিদায়, প্রতিষ্ঠান ধ্বংসের আরেক উদাহরণ ক্রিকেট দল।

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪
  • ৩৬ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্ট।

শেষ পর্যন্ত সুপার এইট থেকেই বিদায় নিয়ে দেশে ফিরছে টাইগাররা।

সুপার এইটে দুইটা হারের পরেও প্রায় পড়ে পাওয়া চৌদ্দ আনার মতো একটা সুযোগ পেয়েছিল বাংলাদেশ। সেমিফাইনালের কোয়ালিফায়ারে পরিণত হওয়া খেলাটায় বিচলিত ও উত্তেজিত আফগানিস্তান মাত্র ১১৫ রানে গুটিয়ে যায়। বাংলাদেশকে সেমিফাইনালে যেতে জিততে হতো ১২.১ ওভারে।

পিচটা ব্যাটিং সহায়ক ছিল না তা সত্যি, কিন্তু পিচ যেমনই হোক এই ধরনের সুযোগ পেলে দুনিয়ার যে কোনো দলই একটা চেষ্টা নিতো। কারণ ১২.১ ওভারে জিততে না পারলে এমনিতেও টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় হতো। আশ্চর্যভাবে দেখা গেলো, বাংলাদেশ দল সেই চেষ্টাই করলো না। তাঁদের শরীরী ভাষাতেই কোনো চেষ্টা দেখা গেলো না।

বছরের পর বছর ক্রিকেট খেলেও, দুনিয়ার অন্যতম ধনী ক্রিকেট বোর্ড এবং বিশ কোটি লোকের বিপুল সমর্থন থাকলেও দলটার যে জেতার মতো মানসিকতাই গড়ে উঠেনি তার পেছনে আছে এই দেশের গণতন্ত্র ও ন্যায়বিচারের অভাব।

কিছুদিন আগেই এক সাক্ষাৎকারে সাকিব আল হাসান বলেছিলেন, ২০১৩ সাল পর্যন্ত তিনি জান উজাড় করে খেলতেন। তিনি ভাবতেন খেলার ভালো-মন্দ আর দলের প্রতি ডেডিকেশন থাকাটাই আসল। কিন্তু, একবার বোর্ডের নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর তিনি টের পান এই দেশে শুধু খেলার পারফর্ম্যান্স বিষয় না। এখানে বোর্ডের কর্তাদের খুশী রাখতে হয়, নানারকম লিয়াজোঁ ঠিক রাখতে হয়, রাজনীতিটা বুঝতে হয়।

রাজনীতিটা খুব ভালো বুঝেছেন সাকিব। যে ধারায় তিনি ক্ষমতাসীন দলের লেজুড় ধরে সংসদ সদস্য হয়েছেন। তাঁর নামে শেয়ারবাজার, মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানে বেতন না দেওয়া সহ নানারকম দুর্নীতির অভিযোগ। কিন্তু, খেলার মাঠে পারফর্ম্যান্স যাই থাক, সাকিব জানেন, এদেশে যেহেতু কোনো গণতন্ত্র নাই, এইখানে ম্যানেজ করাই আসল।

সাকিবের মতো আরেক সাবেক ক্যাপ্টেন মাশরাফি এর আগেই সে দলে নাম লিখিয়েছেন। একসময় গোটা দেশের ভালোবাসা পাওয়া মানুষটা দলের বোঝা হয়েও দলে খেলে গেছেন, দেশের মানুষের ভালোবাসার বদলে বিনা ভোটের এমপি হওয়াটাই বেছে নিয়েছেন।

এতো গেলো বাংলাদেশের অন্যতম সেরা দুই ক্রিকেটারের গল্প। বাকিদের কথা তো বলাই বাহুল্য। পারফর্ম্যান্সের চেয়ে কর্তাদের মন জোগানো আর তাঁদের গুটি হওয়াই দলে থাকা আর লাখ লাখ টাকা কামানোর উপায় এই ব্যাপারটা তাঁরা ধরে ফেলেছেন। এমনকি হাথুরুসিংহের মতো বিদেশি কোচও তা ধরে ফেলেছেন। বিদেশি কোচেরা যত ভালোই হোক, যারা ম্যানেজ করার খেলায় ব্যর্থ তাঁরা টিকতে পারেন না।

ক্রিকেট দিয়ে এই দেশের সার্বিক অবস্থা বোঝা যায়। দেশের স্কুল ক্রিকেটের অবস্থা তথৈবচ। ঘরোয়া লীগে কাউন্সিলর ভোট আর অন্যান্য সমীকরণে বেশিরভাগ খেলাই পাতানো হয়। একবার এক প্রতিবাদী ছেলে পাতানো খেলার প্রতিবাদে দ্বিতীয় বিভাগের এক খেলায় ৪ বলে ইচ্ছা করে ৯২ রান (ওয়াইড দিয়ে) বিশ্ববাসীর দৃষ্টি কেড়েছিলেন। অনেক হইচই হলেও কোনো পরিবর্তন হয়নি। কারণ ৯০০ কোটি টাকার এফডিআরসহ অগণিত ব্যবসা আর সামাজিক অবস্থানকে কাজে লাগিয়ে বিপুল ব্যবসার ধান্দা করা বোর্ড কর্তারা খেলার মান বা উন্নয়ন নিয়ে একদমই চিন্তিত না। দেশের প্রায় সমস্ত সেক্টরেই এই হচ্ছে। আর্মির আজিজ, পুলিশের বেনজীর বা ট্যাক্সের মতিউরের মতো ক্রিকেট বোর্ডও একইভাবে চলছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট